শেয়ারড হোস্টিং কি? শেয়ারড হোস্টিং এর বিভিন্ন সুবিধা ও অসুবিধা গুলো কি কি?


যখন আমি আমার ব্লগিং যাত্রা শুরু করি, ওয়েব হোস্টিং এবং অন্যান্য জিনিসগুলি আমার জন্য সম্পূর্ণরূপে প্রস্তুত ছি

.

যখন আমি আমার ব্লগিং যাত্রা শুরু করি, ওয়েব হোস্টিং এবং অন্যান্য জিনিসগুলি আমার জন্য সম্পূর্ণরূপে প্রস্তুত ছিল না। তাই ব্লগারের ব্লগ ব্লগস্পট ব্লগে ব্লগিং করি, তারপর আমি blogspot.com এ শুরু করি এবং পরে আমি নিজের -হোস্টেড ওয়ার্ডপ্রেস সাইটে চলে যাই। এই সময় যখন আমি বুঝতে পারলাম Shared Web Hosting কী, তখন আমি জানতে পেরেছি Shared Hosting হোস্টিং ব্যবহার করে এবং অন্যান্য ধরনের ওয়েব হোস্টিং ব্যবহার করে কতটা সুবিধা হচ্ছে। আমি ওয়েব হোস্টিংয়ের সাথে একটি ওয়েবসাইট তৈরী করি। তারপরে রেজাল্ট পেতে থাকি। যা ব্লগস্পট এর ফ্রি হোস্টিং থেকে অনেক ভালো কাজ করছিল আমার জন্য এবং আপনি দ্রুত আপনার ওয়েবসাইটকে Rank করতে সক্ষম হবেন। তাই এই টিউন এ আমি আপনাকে বলতে যাচ্ছি কেন শেয়ার্ড হোস্টিং ব্লগার এর তুলনায় ভালো। শুরু করা যাক।

ওয়েব হোস্টিংয়ের সবচেয়ে সাধারণ এবং সস্তাতম প্রকার: শেয়ার্ড হোস্টিং, ভিপিএস হোস্টিং, রিসেলার হোস্টিং এবং ডেডিকেটেড হোস্টিং। তারপরে আপনি উইন্ডোজ হোস্টিং, লিনাক্স হোস্টিং, সিপিএর হোস্টিং, প্লেস্ক হোস্টিং ইত্যাদিতে শেয়ার্ড হোস্টিং এ পরিণত করতে পারবেন। আপাতত আমি শেয়ার্ড হোস্টিং সম্পর্কে আলোচনা করবো। আমি namecheap এর সঙ্গে আমার হোস্টিং যাত্রা শুরু করি। বর্তমানে আমি namecheap.com এর শেয়ার্ড হোস্টিং প্যাকেজে টি বাবার করছি। আমার সাইট টি ব্লগস্পট হতে ওয়ার্ডপ্রেস এ স্থানান্তরিত করেছি। আপনি এখানে ওয়ার্ডপ্রেস জন্য শীর্ষ শেয়ার্ড হোস্টিং এর একটি তালিকা দেখতে পারেন এবং আমার পূর্বের অভিজ্ঞতা অনুযায়ী বলতে পারি যে namecheap এর শেয়ার্ড হোস্টিং কম রাতে এ সবচে ভালো পারফরমেন্স দিবে। আপনি বেসিক প্ল্যান টি নিলে ৩ তা সাইট এড করতে পারবেন যা ব্লোগ্গিং শুরু করে জন্য যথেষ্ট। অতএব, আমি আপনাকে বলব যে আপনি বেসিক প্ল্যান এর সাথেই শুরু করুন।

আপনি শেয়ার হোস্টিং পেতে চান, তাহলে আপনি নীচের লিঙ্কে ক্লিক করে কিনতে পারেন।

 

শেয়ার্ড ওয়েব হোস্টিং কি?

শেয়ার্ড হোস্টিং আপনার নিজের ওয়েবসাইট তৈরি করতে একটি বেসিক হোস্টিং প্যাকেজ। কোনও ওয়ার্ডপ্রেস ব্লগ বা সাইটের জন্য, একটি শেয়ার্ড হোস্টিং প্যাকেজ যথেষ্ট এবং আপনি এটি আপনার বাজেটে পাবেন। মানে হচ্ছে অন্য দেড় সাথে আপনার হোস্টিং স্পেস ভাগ করা হবে। আপনি হয়তো একজন বেসিক ব্লগার এখন ব্লোগ্গিং স্টার্ট করতে চাচ্ছেন কিন্তু কমের মধ্যে ভালো হোস্টিং চাচ্ছেন। তবে শেয়ার্ড হোস্টিং আপনার জন্য বেস্ট চয়েস হতে পারে। আর শেয়ার্ড হোস্টিং এর সব সাইতে একই আইপি থাকে। আপনার আইপি ঠিকানা এবং আপনার সার্ভার ভাগ করা থাকবে। কোন ব্যবহারকারীর জন্য কোনও ডেডিকেটেড আইপি থাকবে না এবং কোনও ডেডিকেটেড সার্ভার ব্যবহার করতে পারবে না। যাইহোক, শেয়ার হোস্টিংয়ে, যখন কোনও ব্যবহারকারী ওয়েবসাইট অনেকগুলি ওয়েবসাইট ব্যবহার করে, হোস্টিং ডাউন হওয়ার চান্স থাকে।

শেয়ার্ড হোস্টিং এর সুবিধা এবং অসুবিধা?

শেয়ার্ড হোস্টিং প্যাকেজের অনেক সুবিধা এবং অসুবিধা রয়েছে যার তালিকা আমি নীচে দিচ্ছি।

শেয়ার্ড ওয়েব হোস্টিং ছোট ওয়েবসাইট, নতুন ওয়ার্ডপ্রেস ব্লগ এবং স্ট্যাটিক ওয়েবসাইটের জন্য যথেষ্ট। কম খরচে মোটামোটি মানের হোস্টিং ব্যবহারের ক্ষেত্রে শেয়ার্ড হোস্টিং ব্যবহার যোগ্য। এবং এটিও বেশ ভাল এবং বিশ্বস্ত কারণ শেয়ার্ড হোস্টিং আপনার প্রাথমিক ওয়েব-স্পেস এবং ব্যান্ডউইথের প্রয়োজনীয়তা পূরণ করে।

অনেক শেয়ার্ড ওয়েব হোস্টিং সীমাহীন স্থান এবং ব্যান্ডউইথ (যেমন, Bluehost, Hostgator, namecheap) প্রদান করে যা আপনার মাঝারি আকারের ওয়েবসাইট / ব্লগগুলির চাহিদা পূরণ করে। শেয়ার্ড হোস্টিংয়ের সবচেয়ে বড় ক্ষতি হল এটি একই হোস্টিংয়ের অনেক ব্যবহারকারীকে স্থান দেয় এবং এটি সার্ভার আপটাইম সমস্যার সৃষ্টি করে।