এ শহরে মানুষের মরে যাওয়া নিয়ত নিয়ম যেন

এ শহরে মানুষের মরে যাওয়া নিয়ত নিয়ম যেন
অনিয়ত খোয়াবের খাপ মেপে ফিরে আসা।
প্রতিদিনে প্রতিক্ষণে, কতশত স্বপ্নে

এ শহরে মানুষের মরে যাওয়া নিয়ত নিয়ম যেন
প্রতিদিন অক্ষত বেঁচে থাকা বিস্ময়!
অথবা বিরল যেন স্বাভাবিক মৃত্যু,
তবু সেই আমাদের কামনায়।

অনাগত আত্মা, সাধ - ভালোবাসা মরে
বেঁচা থাকা, - নেই যে উপায়!
কি নিপুণ চেষ্টা ছিলো, চার হাতে - দেহদ্বয়ে,
তবুও সে অবশেষে নিরুপায়।

কি তার জবাব বলো,
সাধের আহার হাতে যেই পিতা -
এধার - ওধার শুধু খুঁজে ফিরে
অভুক্ত একতাল আত্মজা!

কভু কি আর, এই আহার, সুবাসিত এ বাহার
পারিবেন দেখতে বা চাখতে?
আহারে জীবন আহা, কিভাবে কেমন বাঁচা
এ শহরে অপঘাতই নিত্যি!

একপাল মনুষ্য এ খোয়াড়ে,
মানবিক, মানবতা, - পড়ে থাকে সে ভাগাড়ে
খোয়াড়ের মালিকেরা লাভ-ক্ষতি ভাবনায়
এরে মারে, তারে খায়, মাঝে মাঝে বদহজমে পেটফাঁপে, কাতরায়।

আর শুধু, এ শহরে মানুষেরা মরে যায়
নিয়ত নিয়ম মেনে, খোয়াড়ির ইচ্ছায়।
জীবনের বেসাতিতে তুমি - আমি - আপনি
অনিঃশেষ শুধু ছুটি, স্বাভাবিক মৃত্যুর পথখানি হাতড়াই।