খুব সহজ তাইনা আপু?

বেপর্দা কাউকে দেখলে ব্যঙ্গ করা,ভ্রু কুঁচকানো?...

আপনি ক্বওমী মাদ্রাসায় পড়েছেন /পড়েন,,আপনি হাফেজা/আলেমা/মুফি??

খুব সহজ তাইনা আপু? বেপর্দা কাউকে দেখলে ব্যঙ্গ করা,ভ্রু কুঁচকানো?... আপনি ক্বওমী মাদ্রাসায় পড়েছেন /পড়েন,,আপনি হাফেজা/আলেমা/মুফিতিয়া,,আপনার পরিবারের সবাই নামাজী,দ্বীনদার পরদানশিন। এটা উত্তম।অনেক ভাল। এই পরিবারে থেকে নামাজ আদায়,পরদা করা খুব সহজ তাইনা আপু? কোনন সমস্যার সম্মুখীন হতে হয় না পরিবারের সবাই আল্লাহওয়ালা।তাই আপনিও আল্লাহর হুকুম খুব সহজেই মানতে পারেন।? কিন্তু কখনওই অই মেয়েটার কথা ভেবেছেন কি? যেই মেয়েটার বাবা,মা,ভাই,বোন কেউ দ্বীনদার নয়,,নামাজি নয়,,ফরজ নামাজ টাও যারা পড়ে না,রোজা ত দূর কি বাত,পরদা কেউ করে না।হালাল-হারাম মানে না, সুন্নাহ মানে না....????? সে কত কস্টে নামাজ আদায় করে পরদা করে ভেবেছেন কি?? অনেক কস্ট করতে হয় জানেন? এত সহজ নয়।যারা আল্লাহকেই চিনে না তারা কি করে মানবে আল্লাহর হুকুম? আর কি করেই বা নিজের মেয়েকে আল্লাহর হুকুম মানতে সাহায্য করবে??? পরিবারের কেউ নামাজি নয়? কথা টা কতটা।মারাত্মক বুঝেছেন? এমন পরিবেশে থেকে দ্বীন পালন করা কি খুব সহজ??? একেবারেই কি পরহেজগার হওয়া যায়??? না,সব কিছুর জন্য সময় প্রয়োজন। যেমন একটা বীজ বুনলে প্রথমে মাটিতে বুনতে হয়।এরপর পানি দিতে হয়।সার,গোবর দিতে হয়।চারপাশে বেড়া দিয়ে রক্ষা করতে হয়।তারপরই গাছটা বড় হয় আর ফল ধরে। দ্বীনের পথে আসার জন্য ও এমন করতে হয়।ধাপে ধাপে এগোতে হয়। লাফ দিয়ে কিছুদুর যেয়ে থেমে গিয়ে লাভ নেই। আস্তে আস্তে হাটি হাটি পা পা করে এগুলে অনেক পথ পারি দেয়া যায়। সবাই যখন নিজেকে খোলামেলা রাখতে,প্রদর্শন করতে,ব্যস্ত। ঠিক সেই সময় বে দ্বীন পরিবারে বেড়ে উঠে/থেকে নিজেকে ঠেকে রাখা টা কি খুব সহজ? চাইলেই কি পারা যায়?? ...না,পারা যায় না। আল্লাহর কাছে সাহায্য চাইতে হয়,দুয়া করতে হয়,নিজের নিয়াত ঠিক করে,অন্তরকে বুঝিয়ে,নফসের গোলামি ছেড়ে দিয়ে তারপর আল্লাহর রাস্তায় নামতে হয়। আর এই রাস্তায় শত ত কাটায় ভরা। বহু মানুষের কটুক্তি,,কটাক্ষ,খারাপ ব্যবহার সহ্য করতে হয়। অনেক কস্ট,ত্যাগ আর কুরবান করতে হয় হাজার শখ আহ্লাদ,স্বপ্ন,। কেননা জান্নাতে হাটার পথ খুব কস্টের... কিন্তু জান্নাত চিরসুখের....