Bhoot Fm..
রাসেল ভাই ঘটনাটা ভোটারের দিন দুপুরের । ঘুম থেকে উঠে দুপুর একটায় আমি ভোটকেন্দ্রে ভোট দিতে যাই। ভোটার তালিকায় নিজের নাম খুঁজতে শুরু করি। যারা ভোট দিয়ে গেছে তাদের নামে টিক দেওয়া। আমি আমার নাম খুঁজছি এমন সময় দেখি এলাকার এক লোকের নামের পাশে টিক দেওয়া। আমি সেই লোকের নাম এলাকার নাম মিলিয়ে দেখলাম। রাসেল ভাই আমি যা দেখলাম তা দেখার জন্য মোটেও প্রস্তুত ছিলাম না।
এই লোক মারা গেছে প্রায় দুই মাস হয়ে এলো অথচ তার নামের পাশে টিক দেওয়া অর্থাৎ তিনি আজ ভোটকেন্দ্রে এসে ভোট দিয়ে গেছেন।
আমি শিওর হওয়ার জন্য কতৃপক্ষকে জিজ্ঞেস করলাম এই লোক কি ভোট দিয়ে গেছেন? কতৃপক্ষ বললো টিক দেওয়া সবাই ভোট দিয়েছে আপনি আপনার টা খুঁজুন। এই কথা শোনার পর রাসেল ভাই আমি ঠিক থাকতে পারেনি, সেখানেই অজ্ঞান হয়ে পড়ে যাই। জ্ঞান ফেরার পর দেখি আমি বাসায় এবং বাসায় হুজুর ডাকা হয়েছে আমাকে ঠিক করার জন্য। আমি হুজুরকে সব খুলে বললাম। হুজুর সবকিছু শুনে দোআ পড়ে আমাকে একটা তাবিজ দিলেন এবং বললেন এই তাবিজ ডান হাতের গিরায় পড়লে আর কোন সমস্যা হবেনা।
রাসেল ভাই ঘটনাটা এখানেই শেষ হলে হয়ত ভালো হত কিন্তু না,এই ঘটনার সাথে ঘটে যায় আরও একটি ঘটনা। তাবিজ পড়ে আমি আবার ভোটকেন্দ্রে গেলাম ভোট দেওয়ার জন্য।
আবার ভোটার তালিকায় নিজের নাম খুঁজতে শুরু করলাম। রাসেল ভাই এবার আমি যা দেখলাম তা দেখার জন্য খোদার কসম মোটেও প্রস্তুত ছিলাম না।
দেখি আমার নামের পাশে টিক দেওয়া, অর্থাৎ আমার অজ্ঞান থাকা অবস্থায় কোন খারাপ আত্মা আমার রূপ ধরে ভোট কেন্দ্রে এসে ভোট দিয়ে গেছে... এই কথা চিন্তা করতে করতে আমি আবার অজ্ঞান হয়ে পড়লাম।
জ্ঞান ফিরে দেখি আমি বাসায় এবং আমার মাথার কাছে আবার সেই হুজুর দোআ পড়ছে। আমি হুজুরকে সব খুলে বললাম। হুজুর আমাকে দোআ পড়ে আরও একটি তাবিজ দিলেন এবং বললেন এই তাবিজ বাম হাতের গিরায় পড়লে আর কোন সমস্যা হবেনা। আমি তাবিজটা পড়লাম। তারপর রাসেল ভাই আমাকে আর ভোটকেন্দ্রে যেতে দেওয়া হলোনা। দুই হাতের দুই গিরার তাবিজ নিয়ে এখন আমি ভালোই আছি আর তেমন কোন কিছু ঘটেনি।
রাসেল ভাই এই ছিল আমার ঘটনা।